Primary TET Scam – 42000 প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে আদালতের কড়া নির্দেশ। কি সিদ্ধান্ত নিলো পর্ষদ।

দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে নিয়োগ দুর্নীতি মামলা (Primary TET Scam)। এবার প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি ঘিরে বড় খবর সামনে এলো। সামনেই প্রাথমিক TET Exam 2023. বিচারপতি অমৃতা সিনহা আগামী 20 শে ডিসেম্বর প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদকে এই রিপোর্ট জমা করার নির্দেশ দিয়েছেন। তার আগেই এত বড় তলব কলকাতা হাইকোর্টের! তো চলুন আর বেশি দেরি না করে এখনই এই টেট পরীক্ষা সম্পর্কে জেনে নিন বিস্তারিত। আর এই ধরনের বিশেষ তথ্য পাওয়ার জন্য আমাদের সাথে থাকুন ও পেজটি ফলো করুন।

ADVERTISEMENTS

West Bengal Primary TET Scam 2023

24 শে ডিসেম্বর 2023 প্রাথমিক টেট পরীক্ষা। এর মধ্যেই প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি কান্ডের বড় খবর সামনে চলে এলো। পর্ষদের আইনজীবী লক্ষ্মী গুপ্ত মঙ্গলবার আদালতে বলেন, প্রাথমিক (Primary TET Scam) শিক্ষা পর্ষদ জেলাভিত্তিক যে প্যানেল প্রকাশ করেছিল তা এখনও ওয়েবসাইটে রয়েছে। প্যানেল প্রকাশ না করার বক্তব্য পর্ষদ সরাসরি অস্বীকার করেছে‌।

এরপর আইনজীবী সুবীর সান্যাল আর লক্ষ্মী গুপ্ত মিলিতভাবে বলেন, জেলা ভিত্তিক প্যানেল প্রকাশ করার কোন আইন নেই। রাজ্যের প্রতিটি জেলায় পৃথক পৃথক প্রাথমিক (Primary TET Scam) শিক্ষা পর্ষদ রয়েছে। তারাই নিজস্ব জেলার প্যানেল প্রকাশ করেছিল। এরপরই বিচার প্রতি অমৃতা সিনহা দাবী করেন সেই প্যানেল দেখার। তিনি বলেছেন, এই প্যানেলের সাথে বহু চাকরিপ্রার্থীর ভবিষ্যৎ নির্ভর করে আছে।

এই প্যানেল 6 বছর আগে প্রকাশ করা হলেও পর্ষদের কাছে এখনও সেটি রয়েছে। ED দাবি করেছে 2,207 জন প্রাথমিক শিক্ষকের বেআইনিভাবে নিয়োগ করা হয়েছিল। এরপর মামলাকারীরা আবেদন করেন, পর্ষদের তরফ থেকে প্যানেল দেখানোর। তাঁরা বলেছেন, আদালত যদি প্যানেল না দেখে তাহলে কিভাবে মূল্যায়ন করবে, এই নিয়োগ আইনসঙ্গত হয়েছিল নাকি বেআইনিভাবে (Primary TET Scam).

টেট পরিক্ষার নিয়মে বদলি! নতুন কোন সমস্যার মুখে পড়তে চলেছে পরীক্ষার্থীরা?

এদিন বিচারপতি অমৃতা সিনহা নির্দেশ দেন 20 শে ডিসেম্বর প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদকে জেলাভিত্তিক প্যানেলের রিপোর্ট পেশ করার। 94 জন চাকরিহারা পক্ষের আইনজীবী অনিন্দ্য লাহিড়ী আর পার্থ রায় বর্মন বলেছেন, আদালত যেন আগে তাঁদের কথা শোনে। তাঁদের বক্তব্য না শুনে আদালত রায় দিলে তা এই 94 জন চাকরিহারার জন্য অনিয়ম হবে। প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদও একই দাবী করেছে।

Teacher Recruitment (শিক্ষক নিয়োগ)

তারা আদালতকে সব পক্ষের বক্তব্য শোনার কথা বলেছে। আর এই বক্তব্য শোনা, নাহলে মামলা বাতিল করারও কথা তারা বলেছে। এরপর বিচারপতি অমৃতা সিনহা ক্ষুব্ধ হন। তিনি বলেন, অনেকদিন ধরে মামলা চলছে। এখন কি পর্ষদের এই কথাকে গুরুত্ব দিলে আদালতের চলবে? এরপর তিনি বলেন সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করার কথা।

শেষ মুহূর্তে প্রাইমারী টেট পরীক্ষার্থীদের জন্য জরুরি নির্দেশ। না মানলে পরীক্ষায় বসতে পারবেন না।

অপরদিকে সিবিআই এর আইনজীবী বিল্বদল ভট্টাচার্য বলেন, সিবিআই এর কাছে 2016 সালের নিয়োগ প্যানেল রয়েছে। আদালত প্রয়োজন মনে করলে সেই প্যানেল তাঁরা আদালতে জমা করতে পারবেন। কিন্তু বিচারপতি অমৃতা সিনহা শেষ পর্যন্ত সিবিআই কে এই নির্দেশ দেননি। বরং প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদকে বলেছেন জেলা ভিত্তিক প্যানেল পেশ করার কথা।
written By Aindrila Dhani.

Leave a Comment