Gram Panchayat Recruitment 2024: গ্রাম পঞ্চায়েতে নিয়োগ, এইভাবে প্রস্তুতি নিলে প্রথমবারেই পাস করবেন

Share:

Gram Panchayat Recruitment 2024: বেশ কিছুদিন ধরেই গ্রাম পঞ্চায়েতে কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি ঘিরে হৈচৈ পড়ে গিয়েছে। সম্প্রতি লোকসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রকাশ্যে আনা হয়েছিল গ্রাম পঞ্চায়েতের কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি। যেখানে ইতিমধ্যেই চলছিল রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া। বেশ কিছুদিন পর রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়ে যাওয়ার পর সামনে আনা হয় আবেদন প্রক্রিয়া।

ADVERTISEMENTS

Gram Panchayat Recruitment 2024

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী জানা গিয়েছিল মোট ৬৬৫২ টি শূন্যপদে কর্মী নিয়োগ করা হবে। এই বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী উল্লেখ ছিল অনেকগুলি পদের। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে স্পষ্ট করা হয়েছিল কর্মী নেওয়া হবে গ্রাম পঞ্চায়েত, নির্মাণ সহায়ক, গ্রাম সহায়ক এবং গ্রাম সচিব পদে। এই বিজ্ঞপ্তি সামনে আসার পরেই চাকরিপ্রার্থীরা শুরু করে দিয়েছিলেন তাদের পড়াশুনা।

এখনো পর্যন্ত অনেকেই রয়েছেন রীতিমত দ্বন্দ্বে! বুঝে উঠতে পারছেন না এখানে পরীক্ষা সিলেবাস কী রয়েছে? তারা কীভাবে করবেন পড়াশোনা! কীভাবে নেবেন তাদের প্রস্তুতি? কীভাবে সম্পন্ন হবে নিয়োগ প্রক্রিয়া? সবকিছুই আজকে আমাদের এই প্রতিবেদনে তুলে ধরা হলো (Gram Panchayat Recruitment)।

গ্রাম পঞ্চায়েত পরীক্ষা সিলেবাসে কী কী রাখা হয়েছে?

এখনো পর্যন্ত অফিশিয়াল কোনো রকম সিলেবাস প্রকাশে আনা হয়নি। তবে এক প্রকার গত পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সামনে রেখে অনেকেই মনে করছেন হয়তো এই রূপ প্রশ্নই আসতে পারে এবারে। সেই মতো ইতিমধ্যে অনেকেই শুরু করে দিয়েছেন প্রস্তুতি। যদিও কোনও রকম সিলেবাস পরিবর্তন হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই পরবর্তীতে অফিসিয়াল নোটিফিকেশনের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে চাকরিপ্রার্থীদের।

এখানে নিয়োগ প্রক্রিয়া কীভাবে সম্পন্ন হবে?

জানা যাচ্ছে এখানে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে মোট ১০০ নম্বরে পরীক্ষার ওপর ভিত্তিতে। ধাপ থাকবে মোট তিনটি। সর্বপ্রথম চাকরিপ্রার্থীদের ৮৫ নম্বর এর একটি লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। সেখানে চাকরিপ্রার্থীরা পাস করলে তারপর তাদের দিতে হবে কম্পিউটার টেস্ট। সর্বশেষে ১০ নম্বরের ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে নিয়োগ করা হবে কর্মী (Gram Panchayat Recruitment)।

প্রসঙ্গত এখানে লিখিত পরীক্ষার প্রশ্ন থাকবে বাংলা, ইংরেজি, অংক এবং সাধারণ জ্ঞানের ওপর ভিত্তি করে। এই সমস্ত বিষয়গুলি যদি খুব ভালো করে পড়ে যায় চাকরি প্রার্থীরা তাহলে খুব সহজেই তারা উত্তীর্ণ হতে পারবেন (Gram Panchayat Recruitment)।

চলতি বছরের গ্রাম পঞ্চায়েতের পরীক্ষায় কতজন অংশগ্রহণ করতে চলেছেন?

বিভিন্ন সূত্র থেকে পাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী জানা যাচ্ছে প্রায় ৬৫ শতাংশেরও বেশি কর্মী এখানে বসতে চলেছেন। যারা ইতিমধ্যেই গ্রাজুয়েশন পাস। তাই এই পরীক্ষাটি প্রত্যেকের জন্যেই খুব বেশি পরিমাণে কম্পিটিটিভ হতে চলেছে এমনটাই মনে করছেন সকলে।

কীভাবে চাকরি প্রার্থীরা প্রস্তুতি নেবেন?

যেহেতু ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে আবেদন প্রক্রিয়া, তাই হাতে আর খুব বেশি সময় নেই এমনটাই বলা যেতে পারে। মাত্র সাত থেকে আট মাস হয়তো সময় রয়েছে চাকরিপ্রার্থীদের হাতে। এত কম টাইমে প্রিপারেশন নিতে হলে চাকরিপ্রার্থীকে সবার প্রথম বেছে নিতে হবে তার দুর্বল জায়গাটি।

প্রথম তিন থেকে চার মাস চাকরিপ্রার্থী নিজের দুর্বল বিষয়টির ওপর সময় দেবেন। দিনের অন্তত দু’ঘণ্টা করে রিভিশনের সময় রাখবেন। প্রত্যেকদিন পড়তে হবে কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স। পরীক্ষা যত এগিয়ে আসবে ততই চাকরিপ্রার্থীকে পড়াশোনার দিকে সময় বাড়াতে হবে। শেষ তিন চার মাস চাকরি-পাট থেকে অন্তত ৮ থেকে ৯ ঘন্টা সময় বরাদ্দ করতেই হবে প্রস্তুতির জন্য।

এর সঙ্গে সঙ্গে চাকরিপ্রার্থীরা বিভিন্ন মক টেস্ট এবং প্র্যাকটিস সেট এর মাধ্যমে নিজেদের সময় এবং বুদ্ধি খাটিয়ে প্রশ্নের উত্তর সলভ করার চেষ্টা করবেন। এভাবে যদি একটানা প্রস্তুতি প্রত্যেকে নিতে থাকেন তাহলে প্রথম পরীক্ষাতেই সাফল্য আসবে একেবারে হাতের মুঠোয় (Gram Panchayat Recruitment)।

আরও খবর জানতে ফলো করুন আমাদের দৈনিক নিউজ বাংলাকে

Written By Tithi Adak

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment