PM Kisan FPO Yojana 2024: কৃষির ব্যবসা শুরু করতে টাকা দিচ্ছে মোদি সরকার, আজই করুন আবেদন

Share:

PM Kisan FPO Yojana 2024: একেবারে কৃষির ব্যবসা তৈরি করে দিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার! কৃষকদের আর্থিকভাবে সাহায্য করার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিয়ে এলেন এক বিশেষ স্কিম। যে স্কিম অনুযায়ী কৃষির ব্যবসা শুরু করতে আর্থিক সাহায্য করবে কেন্দ্রীয় সরকার। এই স্কিমের অধীনে ফার্মার প্রোডিউসার অর্গানাইজেশনকে দেওয়া হবে মোট ১৫ লক্ষ টাকা অবধি। যা দিয়ে নতুন কৃষির ব্যবসা শুরু করতে পারবেন সারা দেশের কৃষকেরা।

ADVERTISEMENTS

PM Kisan FPO Yojana 2024

কৃষকদের আর্থিকভাবে সাহায্য করার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির যে স্কিমটি (PM Kisan FPO Yojana 2024) চালু করেছেন তার নাম দেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রী কিষাণ এসপিও যোজনা। এই প্রকল্পের আওতাধীন হতে গেলে মোট ১১ জন কৃষককে মিলে একটি সংগঠন তৈরি করতে হবে সবার প্রথমে। কৃষকদের নানান রকম কৃষির যন্ত্রপাতি কিংবা সার বীজ বা ওষুধ কেনাও সহজ হবে এর মধ্যে দিয়ে।

প্রকল্পের নাম

প্রধানমন্ত্রী কিষাণ এসপিও যোজনা

এই প্রকল্পের সাহায্য পেতে গেলে কী করতে হবে?

মোট ১১ জন কৃষক মিলে একটি সংগঠন তৈরি করতে হবে।

কীভাবে কৃষকেরা আবেদন করতে পারবেন?

এই যোজনায় (PM Kisan FPO Yojana 2024) আবেদন করতে হলে সবার প্রথম ন্যাশনাল এগ্রিকালচার মার্কেটের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে চলে যেতে হবে ইচ্ছুক ব্যক্তিকে। সেখানে হোমপেজের মধ্যেই পেয়ে যাবেন এফপিও অপশন। এই অপশনে ক্লিক করতে হবে তাঁকে।

এরপর রেজিস্ট্রেশন অপশনে ক্লিক করলে একটি ফর্ম খুলে যাবে স্ক্রিনের মধ্যে। ফর্মে যা যা তথ্য চাওয়া হয়েছে সমস্ত কিছু খুব সাবধানে লিখতে হবে। এরপরে পাসবুক কিংবা বাতিল চেক অথবা আইডি স্ক্যান করে আপলোড করে দিতে হবে। সর্বশেষে ইচ্ছুক ব্যক্তি দেখতে পাবেন সাবমিট অপশন। এখানে ক্লিক করতে হবে।

কীভাবে লগইন করবেন?

লগইন করার জন্য সবার প্রথম চলে যেতে হবে, জাতীয় কৃষি বাজারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে। সেখানে হোমপেজে থাকা অপশনে ক্লিক করতে হবে (PM Kisan FPO Yojana 2024)। তারপরে ইচ্ছুক ব্যক্তি দেখতে পাবেন সামনে লগইন অপশন। খুলে যাবে লগ ইন ফর্ম। এখানে লিখতে হবে ইউজারের নাম পাসওয়ার্ড এবং ক্যাপচা কোড। এটা দিয়ে লগইন করতে হবে সেই ব্যক্তিকে।

ফার্মার প্রডিউসার অর্গানাইজেশন কী?

এটি হল কৃষকদের দ্বারা গঠিত একটি স্ব-সহায়তা গোষ্ঠী। যে গোষ্ঠীতে সাধারণত কৃষকরা কৃষকদেরকে সাহায্য করে থাকে। এই কৃষক উৎপাদক প্রতিষ্ঠানের যোগদানের মাধ্যমে বীজ, সার, কীটনাশক, যন্ত্রপাতি, গ্রিনহাউস, পলি হাউস, কৃষি কৌশল, বাজার সংযোগ, প্রশিক্ষণ, নেটওয়ার্কিং, আর্থিক সাহায্য ও কারিগরি সহায়তা সুলভ মূল্যে কৃষকদের পেয়ে থাকেন। এর ফলে বৃদ্ধি পায় কৃষকদের মনোবল। কৃষকদের আয়ের উন্নতি ঘটে। কোনওরকম বাধা ছাড়াই কৃষি কাজে আরও ভালোভাবে পারফর্ম করতে পারেন তাঁরা।

সরকার থেকে কৃষকদের দেওয়া হচ্ছে ১৫ লক্ষ টাকা

কৃষক উৎপাদনকারী সংগঠন প্রতিষ্ঠায় উৎসাহিত করা হচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে। এই কারণে কৃষক উৎপাদক সংস্থা স্কিমও চালানো হচ্ছে। যে স্কিমের অধীনে আবেদনের ভিত্তিতে কৃষক উৎপাদনকারী সংস্থাকে মোট ১৫ লক্ষ টাকা দিয়ে সাহায্য করবে কেন্দ্র। যার সাধারণত তিন বছরের জন্য কৃষকদের স্বার্থে কাজ করবে।

এই প্রকল্পের সুবিধা পেতে পার্বত্য অঞ্চলে কর্মরত কৃষক উৎপাদনকারী সংগঠনে ১০০ জন এবং সমতল অঞ্চলে কৃষক উৎপাদনকারী সংগঠনগুলিতে কমপক্ষে ৩০০ জন কৃষক থাকতেই হবে।

এই প্রকল্পে আবেদন করার শর্ত

১) আবেদনকারীকে অবশ্যই একজন কৃষক হতে হবে।
২) যোগদান করতে হবে কৃষক উৎপাদনকারী সংস্থায়।
৩) থাকতে হবে ভারতের স্থায়ী নাগরিকত্ব।

আরও খবর জানতে ফলো করুন আমাদের দৈনিক নিউজ বাংলাকে

Written By Tithi Adak

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment